ইতিহাস

পটভুমিঃ-

 ৯ জুলাই , ১৯৯৮ সাল। প্রকৃতিতে ছিল বর্ষাকাল। প্রমত্তা পদ্মায় মৃদু মন্দ ঢেউ-এ ছিল খুশির নাচন। ঠিক এমনই মাহেন্দ্রক্ষণে চারঘাট উপজেলার ০৫ নং চারঘাট ইউনিয়নের ১০টি মৌজার ১৮.৭৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে ৯টি ওয়ার্ডের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল চারঘাট পৌরসভা। প্রতিষ্ঠাকালীন চারঘাট ‘গ’ শ্রেনির পৌরসভা হলেও বিগত ৩১ মে/২০১১ ইং তারিখে ‘খ’ শ্রেণী এবং সর্বশেষ ১১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রিঃ তারিখে ‘ক’শ্রেনির পৌরসভায় উন্নীত হয়।

নামকরণঃ-

 চারঘাট পৌরসভাটি চারঘাট উপজেলা শহর ও চারঘাট ইউনিয়নের সিংহভাগ এলাকা নিয়ে গঠিত বলে চারঘাট পৌরসভা হিসেবে নামকরন করা হয়েছে। এখানকার উপজেলা এবং থানার নামও চারঘাট । এটি মূলত পদ্মানদী কেন্দ্রীক প্রাচীন ব্যবসা কেন্দ্র। জনশ্রুতি আছে প্রাচীন কালে পদ্মা নদীর চারটি স্টীমার ঘাটের মাধ্যমে এখানকার ব্যবসা বানিজ্য পরিচালিত হতো , এজন্য কাল ক্রমে এ জনপদের নাম চারঘাট হয়েছে।

ভৌগলিক অবস্থানঃ-

ভৌগলিক অবস্থান চারঘাট পৌরসভা বাংলাদেশের পশ্চিমাংশে রাজশাহী জেলাধীন অন্যতম প্রসিদ্ধ নদী পদ্মার তীর ঘেঁসে লম্বালম্বি অবস্থান করছে। পৌরসভাটি রাজশাহী জেলা শহর হতে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দক্ষিন-পূর্বে ২৪º১৪’ হতে ২৪º ২২’ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮º.৪৬’ হতে ৮৮º. ৫২’ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ ভৌগলিক সীমা রেখার মধ্যে অবস্থিত। পদ্মা নদীর ওপাড়ে রয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়া জেলা। চারঘাট পৌর এলাকার উত্তরে সরদহ ও ইউসুফপুর ইউনিয়ন , দক্ষিনে চারঘাট ইউনিয়ন, পশ্চিমে পদ্মা নদী এবং পূর্বে ভায়ালক্ষ্মীপুর ও সরদহ ইউনিয়ন অবস্থিত।